Friday, 7 October 2016

Indian origin school girl wins first prize at google science fair

গুগল বিজ্ঞান মেলায় সেরা হল ভারতীয় বংশোদ্ভূত খুদে বিজ্ঞানী


বিশ্বের দরবারে তাক লাগিয়ে দিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কিশোরী কিয়ারা নিরঘিন৷ মাত্র ১৬ বছর বয়সে খরা দূর করার উপায় খুঁজে বের করেছে এই খুদে বিজ্ঞানী৷ তার আবিষ্কারে দক্ষিণ আফ্রিকা খরা সমস্যা কাটিয়ে ফের সুজলা-সুফলা হয়ে উঠতে সফল হবে৷ কিয়ারার এই কীর্তির জন্য আমেরিকার গুগল বিজ্ঞান মেলায় ৫০ হাজার মার্কিন ডলার স্কলারশিপ পুরস্কার দেওয়া হল তাকে৷
দক্ষিণ আফ্রিকার একটি বেসরকারি স্কুলের একাদশ শ্রেণির এই ছাত্রী মাটির জলরক্ষণ বিষয়ে একটি প্রজেক্ট তৈরি করেছে৷ কমলা লেবুর খোসা কাজে লাগিয়ে মাটির জল ধরে রাখার ক্ষমতা বৃদ্ধির উপায় বাতলেছে কিয়ারা৷ যার ফলে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে কৃষকরা৷ বৃষ্টির অভাবে ফসল উৎপাদনে চরম ক্ষতি হয়৷ ফলে তাদের লোকসান তো হয়ই, সেই সঙ্গে বাজারেও শাক-সবজির হাহাকার দেখা দেয়৷ তবে এই আবিষ্কারের ফলে দেশের ৭৩ শতাংশ ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ হিসাব করে দেখা যাচ্ছে, প্রতি মেট্রিক টনে লাভের অঙ্ক বেড়ে দাঁড়াবে ৩০ থেকে ৬০ মার্কিন ডলার৷
কিয়ারার ‘নো মোর থার্সটি ক্রপস’ প্রজেক্টটি প্রশংসা কুড়িয়েছে বিজ্ঞানীদের৷ কমলা লেবুর খোসা, যা সাধারণত ফেলেই দেওয়া হয়, প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এত বড় সাফল্য মিলেছে৷ সেই কারণেই গুগল বিজ্ঞান মেলায় বাকি প্রতিযোগীদের পিছনে ফেলে সেরার শিরোপা উঠেছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত কিশোরীর মাথাতেই৷ ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের সুপ্ত প্রতিভাকে খুঁজে বের করতে গুগল বিজ্ঞানমেলার আয়োজন করা হয়৷
৪৫ দিন পর্যবেক্ষণের পর সাফল্য পেয়েছে কিয়ারা৷ বিজ্ঞান মেলায় সেরা হওয়ার পর সে বলে, “রসায়নের প্রতি আমার চিরকালই একটু বেশি আগ্রহ৷ বিজ্ঞানী এম এস স্বামীনাথন আমার ছোটবেলার অনুপ্রেরণা৷ বড় হয়ে একজন সফল কৃষিবিজ্ঞানী হতে চাই৷

No comments:

Post a Comment